সাধু-সাবধান ॥ জগন্নাথপুরে ইদানিং সাংবাদিক পরিচয়ে অপরাধ চক্র সক্রিয়

Spread the love

 

আলী হোসেন খান ::

 

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে ইদানিং সাংবাদিক পরিচয়ে কয়েক জনের একটি অপরাধী চক্র সক্রিয় হয়ে উঠছে। তাদের বিষয়ে সবাই সাবধান থাকুন। তাদেরকে চেনার সহজ উপায় হচ্ছে, তারা যে কোন বিষয়ে সংবাদ প্রকাশের ভয় দেখিয়ে মানুষকে ব্ল্যাকমেইল করে বড় অংকের টাকা দাবি করে থাকে। প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে করে থাকে তদবির ও ধান্ধাবাজি। তারা সমাজে বিভিন্ন ভাবে রয়েছে বিতর্কিত। মনে রাখবেন, জগন্নাথপুর উপজেলার সুস্থ ধারার প্রকৃত সাংবাদিকরা কখনো এ ধরণের কাজ করেন না।
বর্তমান তথ্য-প্রযুক্তির আশির্বাদে কপি সাংবাদিকতা বেড়েছে। ফেইসবুক ও অনলাইন পোর্টাল ভিত্তিক কপি সাংবাদিকতার হিড়িক চলছে। যে কোন গণমাধ্যম থেকে কপি করে সংবাদ নিয়ে ফেইসবুক ও অনলাইনে পোস্ট করে এখন অনেকে নিজেকে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে অপকর্ম করছে। এক সময় তারা জামায়াত-বিএনপির পরিচয় দিয়ে চলতো। তবে দলেও ছিল তারা বিতর্কিত। ছিল না তাদের কোন অবস্থান। এখন তারা রাজনৈতিক পরিচয় বাদ দিয়ে সাংবাদিক পরিচয়ে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।
জগন্নাথপুরে সাংবাদিকদের গ্রুপিং রয়েছে। এ সুযোগকে কাজে লাগিয়ে তারা একেক সময় একেক গ্রুপের আশ্রয় নেয়। তাদের অপকর্মের দায়ে এক গ্রুপ থেকে লাথি দিয়ে তাড়িয়ে দিলে অন্য গ্রুপে গিয়ে আশ্রয় নিয়ে থাকে। এভাবেই চালিয়ে যাচ্ছে তাদের অপকর্ম। এর মধ্যে অনেকবার তারা চাঁদা দাবি ও মানুষকে ব্ল্যাকমেইল করতে গিয়ে ধরা পড়লেও মানুষের হাতে-পায়ে ধরে রক্ষা পেয়ে যায়। যে কারণে বারবার অপরাধ করেও পার পেয়ে যাওয়ায় দিনে দিনে আরো সক্রিয় হয়ে উঠছে।
ইদানিং তাদের অপকর্মে অতিষ্ঠ হয়ে জনপ্রতিনিধি সহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ সুস্থ ধারা সাংবাদিকদের কাছে ক্ষোভ প্রকাশ করে নালিশ করে বলেন, আপনারা সমাজের সব ধরণের সংবাদ গণমাধ্যমে তুলে ধরেন। অথচ সাংবাদিক পরিচয় দানকারীদের বিরুদ্ধে অপকর্মের সত্য প্রমাণ থাকা সত্বেও সংবাদ প্রকাশ করেন না বলে লজ্জিত করেন। তাই সুস্থ ধারার প্রকৃত সাংবাদিকদের মান বাঁচাতে এসব চিহিৃত অপরাধ চক্রের বিরুদ্ধে প্রমাণিত অভিযোগের আলোকে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রচার ও প্রকাশ হয়। এতে এসব অপ-সাংবাদিকরা ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। তাদের মুখোশ উন্মোচন করায় জগন্নাথপুর উপজেলার সুস্থ ধারার জনপ্রিয় ও সততার আদর্শের প্রতীক সাংবাদিক মো.শাহজাহান মিয়াকে জড়িয়ে এ চক্র লোকচুরি করে চালায় অপপ্রচার। যা কোন অবস্থায় মেনে নিতে পারেননি সর্বস্তরের মানুষ। সর্বত্র বইছে নিন্দা ও প্রতিবাদের ঝড়।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *