জগন্নাথপুরে সাংবাদিকরা বৈষম্যের শিকার ॥ বিচার চান জনতার আদালতে

 

 

মো.শাহজাহান মিয়া ::

 

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে করোনা মোকাবেলায় উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ সহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ও চিকিৎসকদের সাথে জীবনের ঝুকি নিয়ে সাংবাদিকরাও দায়িত্ব পালন করছেন। তবুও সাংবাদিকরা প্রতিনিয়ত বৈষম্যের শিকার হয়ে আসছেন অজানা কারণে। এ নিয়ে সাংবাদিক মহলে চাপা ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। দেশের অন্য সাংবাদিকদের মতো জগন্নাথপুর উপজেলায় একঝাক সাংবাদিক নিয়মিত মাঠে থেকে দায়িত্ব পালন করছেন। শুধু জগন্নাথপুর উপজেলা প্রেসক্লাবের অধীনে ১৫ জন সাংবাদিক নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। এসব সাংবাদিকদের পরিশ্রমের ফসল হিসেবে প্রতিদিনের বাস্তব চিত্র গণমাধ্যমে প্রচার ও প্রকাশ হয়ে থাকে। দেশ ও জাতির কল্যাণে সাংবাদিকরা অবদান রাখলেও সাংবাদিকদের কল্যাণে কেউ এগিয়ে আসেনি। করোনায় জীবনের ঝুকি নিয়ে উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা, পুলিশ সহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ও চিকিৎসকরা দায়িত্ব পালন করেছেন। এতে তারা প্রসংশিত হয়েছেন সমাজে। যদিও তারা সরকারি বেতন-ভাতা সহ সব ধরণের সুযোগ-সুবিধা পাচ্ছেন। শুধু সাংবাদিকরাই রয়ে গেলেন বঞ্চিত। তাদের নেই সরকারি বেতন-ভাতা। নেই কোন সুযোগ-সুবিধা। করোনা মোকাবেলায় সরকারি ও বেসরকারি ভাবে অসহায় মানুষ বিভিন্ন সহায়তা পেলেও মধ্যবিত্তরা হয়েছেন বঞ্চিত। সেই বঞ্চিতদের তালিকায় সাংবাদিকরাও রয়েছেন। মন্ত্রী সহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট আবেদন-নিবেদন করেও অজানা কারণে কোন কাজ হয়নি। সাংবাদিকদেরও পরিবার-পরিজন রয়েছে। তবুও নিজের দুঃখ কষ্টের কথা কখনো তুলে ধরতে চায় না। হয়তো সে কারণেই সব সময় হতে হচ্ছে বঞ্চিত। যদিও সাংবাদিকদের কাছে মানুষের প্রত্যাশা অনেক বেশি। তাই জন চাওয়া পূরণে জীবন বাজি রেখে কাজ করছেন সাংবাদিকরা। তবে কোন ভূল হলেই হামলা-মামলার শিকার হতে হয় সাংবাদিকদের। আর সমালোচনা ও বিষাদগার তো রয়েই গেল। এর পরও সাংবাদিকরা নীতিতে অবিচল থেকে দায়িত্ব পালন করছেন। তাই জনতার আদালতে সাংবাদিকরা আজ বিচার প্রার্থী।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *