জগন্নাথপুরে শিলাবৃষ্টিতে ধানের ব্যাপক ক্ষতি, কৃষকদের হাহাকার

Spread the love

মো.শাহজাহান মিয়া ::

 

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে শিলাবৃষ্টিতে জমির পাকা ধানের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। তা দেখে কৃষকদের মধ্যে হাহাকার বিরাজ করছে।
৩১ মার্চ রোববার সন্ধ্যায় জগন্নাথপুরের উপর দিয়ে প্রায় ঘন্টা ব্যাপী ঘুর্ণিঝড় ও ভারী শিলাবৃষ্টি বয়ে যায়। ঘুর্ণিঝড়ে বেশ কয়েকটি ঘর-বাড়ি ও গাছপালা ভেঙে যাওয়ার খবর পাওয়া গেছে। তবে শিলাবৃষ্টিতে পাকা বোরো ধানের ব্যাপক ক্ষতি করেছে। ১ এপ্রিল সোমবার সরজমিনে দেখা যায়, জগন্নাথপুর উপজেলার নারিকেলতলা (নয়াবন্দ) হাওরে ধানের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। এছাড়া নলুয়ার হাওর সহ অন্যান্য হাওরেও ধানের ক্ষতি হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

এ সময় কৃষকরা জানান, জগন্নাথপুরে এবার বোরো ধানের বাম্পার ফলন হয়েছিল। তবে ধানের থোড় আসার পর বিশেষ করে ব্রি-২৮ জাতের ধানে ব্যাপক হারে ছিটা রোগে আক্রমন করে। সেই সাথে ইদুরের আক্রমনও ছিল। এরপরও কৃষকরা আসায় বুক বেধে ছিলেন। কোন রকমে যদি কিছু ধান গোলায় তোলা যায়। অবশেষে শিলাবৃষ্টি কৃষকদের সেই স্বপ্নকে ভেঙে দিয়েছে। কেড়ে নিয়েছে মুখের আহার। জমিতে ছিল পাকা ধান। কৃষকরা আশা করে ছিলেন আগামী ২/১ দিনের মধ্যে ধান কাটা শুরু করবেন। তা আর হলনা। শিলাবৃষ্টি জমির সকল পাকা ধান ফেলে দিয়েছে। শিলা বৃষ্টিতে ঝরে গিয়ে জমির তলানীতে পরে থাকা পাকা ধান দেখে কৃষকরা কান্নায় ভেঙে পড়েন। বর্তমানে ধানের এমন অবস্থা হয়েছে, কোন শ্রমিকও এ ধান কাটতে চাইবে না। কাটাতে গেলেও শ্রমিকের পারিশ্রমিক মালিকদের ভর্তুকি দিতে হবে। এর মধ্যে অনেক মালিকগণ ধান কাটাতেও চাইছেন না ভর্তুকির ভয়ে। তা দেখার যেন কেউ নেই।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!