জগন্নাথপুরে মসজিদ বন্ধ থাকা নিয়ে গ্রামবাসীর ক্ষোভ

Spread the love

 

মো.শাহজাহান মিয়া ::

 

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে এক বছর ধরে একটি মসজিদ বন্ধ থাকা নিয়ে গ্রামবাসীর মধ্যে ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে। জগন্নাথপুর পৌর এলাকার বাদাউড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।
স্থানীয়রা জানান, বাদাউড়া গ্রামবাসীর উদ্যোগে নির্মিত প্রথম মসজিদটি নদী গর্ভে বিলিন হয়ে গেছে। গত প্রায় ২ বছর আগে হবিবপুর গ্রামের প্রবাসী মাওলানা ফয়েজ আহমদের উদ্যোগে বাদাউড়া গ্রামে আরেকটি মসজিদ নির্মাণ হয়। বেশ কিছুদিন গ্রামবাসী এ মসজিদে নামাজ আদায় করেন। এক পর্যায়ে মসজিদটি গ্রামবাসীর নামে ওয়াকফ করা ও বাদাউড়া গ্রামের নাম পরিবর্তন করা নিয়ে বিরোধের সৃষ্টি হয়। যে কারণে দীর্ঘ প্রায় এক বছর ধরে মসজিদটি তালাবদ্ধ রয়েছে। পড়ে আছে অযতœ-অবহেলায়।
এদিকে-গ্রামবাসীর উদ্যোগে পাশেই আরেকটি নতুন মসজিদ নির্মাণ কাজ চলছে। বর্তমানে গ্রামের মানুষ একটি টিনসেড ঘরে নামাজ আদায় করছেন। এ ব্যাপারে মসজিদের ইমাম সোলাইমান হোসাইন বলেন, মসজিদ নিয়ে বিরোধিতার কারণে গ্রামে মসজিদ থাকা সত্বেও বন্ধ রয়েছে। বর্তমানে অস্থায়ী ঘরে গ্রামবাসী নামাজ আদায় করছেন গ্রামবাসী। তবে গ্রাম বাসীর পক্ষে বেলায়েত হোসেন সহ অনেকে বলেন, গ্রামের প্রথম মসজিদটি নদীতে ভেঙে গেছে। পরে মাওলানা ফয়েজ আহমদ আরেকটি মসজিদ দিয়েছেন। এতে আমরা গ্রামবাসী অনেক আনন্দিত হয়েছিলাম। তবে মসজিদ দিয়ে তিনি আমাদের ঐতিহ্যবাহী বাদাউড়া গ্রামের নাম পরিবর্তন করে মাদানীনগর রাখেন ও মসজিদটি গ্রামবাসীর নামে ওয়াকফ করে দেননি। যে কারণে গ্রামবাসী মসজিদ ত্যাগ করেছেন। এরপর থেকে এক বছর ধরে মসজিদ তালাবদ্ধ রয়েছে। বর্তমানে গ্রামবাসীর উদ্যোগে আরেকটি নতুন মসজিদ নির্মাণ কাজ চলছে। এ বিষয়ে চেষ্টা করেও প্রবাসে থাকায় মাওলানা ফয়েজ আহমদের মন্তব্য জানা সম্ভব হয়নি।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *