জগন্নাথপুরে জায়গার মালিকানা নিয়ে বিরোধ তুঙ্গে

 

মো.শাহজাহান মিয়া ::

 

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে বাড়ির জায়গার মালিকানা নিয়ে দুই পক্ষের বিরোধ তুঙ্গে রয়েছে। যে কোন সময় বড় ধরণের সংঘর্ষের আশঙ্কা করছেন এলাকাবাসী। পরিস্থিতি সামাল দিতে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। উপজেলার চিলাউড়া-হলদিপুর ইউনিয়নের বাউধরণ গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। আদালতের স্থিতিতাদেশ অমান্য করে বিরোধীয় বাড়িতে কাজ করা নিয়ে গ্রামের আবদুল আজিজ ও আবদুন নুরের লোকজন মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছেন। কখন কি হয় কেউ বলতে পারছেন না।
১৯ মে মঙ্গলবার সরজমিনে গ্রামের শালিসি ব্যক্তি হিরন মিয়া বলেন, স্থানীয় বাসুদেবস্বরণ মৌজার জেএল নং ১৮৫ সাবেক দাগ নং ১৪৮১ ও সাবেক খতিয়ান নং ৩৩০ এ ৩৯ শতক জমির মালিক বাউধরণ গ্রামের মৃত মুরফত উল্লাহ। মুরফত উল্লার ২ ছেলে ও ১ মেয়ে উত্তরাধিকারী রেখে যান। এর মধ্যে মেয়ে খুশি বিবিকে বাদ দিয়ে শুধু ছেলে সাজিদ উল্লাহ ও সজিদ উল্লাহ উক্ত জমি বিক্রি করেন গ্রামের আশরাফ আলীর কাছে। আশরাফ আলী আবার বিক্রি করেন আবদুন নুরের কাছে। তবে উক্ত জমির আরেক উত্তরাধিকারী খুশি বিবির ছেলে আবদুল আজিজ তার মায়ের অংশ ফিরে পেতে আদালতে মামলা দায়ের করেছেন। বর্তমানে মামলা চলছে। এমতাবস্থায় মামলা নিস্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত এ বিরোধীয় বাড়িতে আদালত স্থিতিতাদেশ জারি করেন। আদালতের স্থিতিতাদেশ অমান্য করে পাকা লেট্রিন নির্মাণ করতে গেলে আবদুল আজিজ পক্ষ বাধা দেন। এ সময় স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আরশ মিয়া কাজ করার নির্দেশ দিলে গ্রামবাসীদের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে। এ ঘটনায় থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ সময় গ্রামের শালিসি ব্যক্তি শামীম আহমদ, আইছ উল্লাহ, হারুন মিয়া, হাজী হামদু মিয়া, আবদুল মন্নান, সাজন মিয়া, নুর জামাল, আকুল মিয়া, খয়রুল মিয়া, রুবেল মিয়া, শফিকুল মিয়া, কামাল মিয়া, আংগুর মিয়া সহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে চিলাউড়া-হলদিপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আরশ মিয়া বলেন, এ বাড়ির জায়গা আবদুন নুরের খরিদা সম্পত্তি। তবে এ জায়গায় আদালতের স্থিতিতাদেশ জারির বিষয়টি আমার জানা নেই।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *