চাঁদাবাজ মোশাররফ করিম!

চাঁদ এমন একটা ছেলে যার নাম শুনলে কিছু মানুষ আতঙ্কিত হয় আবার কিছু মানুষ বেঁচে থাকার স্বপ্ন দেখে। ভাবলেশহীন ও স্বল্পভাষী চাঁদের একটা গ্রুপ আছে, যারা চাঁদের সঙ্গে সব সময় বাইক নিয়ে ঘুরে বেরিয়ে সবার খোঁজখবর রাখে এবং কার কি প্রয়োজন তা তারা মেটানোর চেষ্টা করে। চাঁদ শহরের নির্দিষ্ট কিছু মানুষের কাছ থেকে ওয়ান পার্সেন্ট হারে চাঁদা আদায় করে। যার নাম দেয়া হয় ‘চাঁদের চাঁদা’। সেই চাঁদার টাকা চলে যায় একটি এতিমখানায় ও দুস্থদের সাহাযার্থ্যে। চাঁদ তার বন্ধুদের নিয়ে একটা চায়ের দোকানে আড্ডা দেয়।

সেই দোকানের বিপরীতে দোতলা বাড়িতেই রগচটা বৃদ্ধ হোমিও ডাক্তার কালিপদ থাকেন। রগচটা হলেও বিনে পয়সায় এতিমদের চিকিৎসা করেন তিনি। তার একমাত্র নাতনি জবা জানালা দিয়ে সব সময় খেয়াল করে চাঁদকে। হঠাৎ একদিন জবার অনুরোধে চাঁদ ডাক্তার বৃদ্ধের পাশে বসে তাকে ডাকতেই বৃদ্ধ চোখ খুলে অস্পষ্ট দেখে মৃদু হাসতেই চাঁদের চোখ থেকে অঝরে পানি পড়ে। এভাবেই এগিয়ে যায় ‘চাঁদের চাঁদা’ নাটকের গল্প। অয়ন চৌধুরীর রচনা ও শাহনেওয়াজ রিপনের পরিচালনায় সাত পর্বের এ ধারাবাহিকে চাঁদ চরিত্রে অভিনয় করেছেন মোশাররফ করিম। এ নাটকে আরো অভিনয় করেছেন রুবিনা রেজা জুঁই, ফারুক আহমেদ, রহমত আলী, সানজিদা তনী, তমাল মাহবুব প্রমুখ। টম ক্রিয়েশন প্রযোজিত এ ধারাবাহিকটি আসছে ঈদে একটি বেসরকারি চ্যানেলে প্রচার হবে।
মোশাররফক করিম বলেন, অনেক সুন্দর একটি গল্প এ নাটকের। আনন্দের পাশাপাশি অনেক মেসেজও থাকবে এতে। আশা করছি ভালো লাগবে সবার।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!